প্রকাশঃ Thu, Aug 8, 2019 6:08 PM
আপডেটঃ Sat, Aug 17, 2019 12:39 AM


কিশোরগঞ্জে চলন্ত বাসে ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল

অনলাইন ডেস্ক

কিশোরগঞ্জে চলন্ত বাসে ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল

কিশোরগঞ্জে চলন্ত বাসে চাঞ্চল্যকর নার্স শাহিনুর আক্তার তানিয়া (২৩) ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বাজিতপুর থানার ওসি (তদন্ত) সারওয়ার জাহান নয় জন আসামির নামে কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুনের আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

আসামীরা হলেন- বাসের চালক নূরুজ্জামান নূরু, বাসের সহকারী লালন মিয়া, বোরহান, আল আমীন, রফিকুল ইসলাম রফিক, খোকন মিয়া, বকুল মিয়া ওরফে ল্যাংড়া বকুল, বাসের এমডি পারভেজ সরকার পাভেল ও বাসের মালিক আল মামুন। 

কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ জানান, আসামীদের মধ্যে ছয়জন গ্রেফতার হয়ে জেলহাজতে রয়েছেন। তারা হলেন নূরুজ্জামান নূরু, লালন মিয়া, রফিকুল ইসলাম রফিক, খোকন মিয়া, বকুল মিয়া ওরফে ল্যাংড়া বকুল ও আল মামুন। তিনজন আসামী এখনও পলাতক রয়েছেন। তারা হলেন বোরহান, আল আমীন ও পারভেজ সরকার পাভেল। পুলিশ সুপার আরও জানান, মামলার এজাহার নামীয় চারজন আসামীর মধ্যে তিনজনের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে। এ তিনজন সরাসরি ধর্ষণ ও হত্যার সাথে জড়িত। তারা হলেন নূরুজ্জামান নূরু, লালন মিয়া ও বোরহান। ধর্ষণের পর হত্যাকাণ্ডে সহায়তায় জড়িত আসামীরা হলেন- আল আমীন, রফিকুল ইসলাম রফিক, খোকন মিয়া, বকুল মিয়া ওরফে ল্যাংড়া বকুল, আল মামুন ও পারভেজ সরকার পাভেল। তদন্তে মামলার এজাহারভূক্ত আসামী আবদুুল্লাহ আল মামুনের ঘটনার সাথে সম্পৃক্ততা না পাওয়ায় তাকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

ধর্ষণ ও মাথায় আঘাতজনিত কারণে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তানিয়ার মৃত্যু হয়েছে বলে ময়না তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। ঘটনার পর বাসসহ বেশকিছু আলামত জব্দ করে পুলিশ। এগুলোর মধ্যে রয়েছে একটি স্যামসাং মোবাইল ফোন, স্বর্ণলতা পরিবহনের দুটি বাস (ঢাকা মেট্রো ব-১৫-৪২৭৪ ও ঢাকা মেট্রো ব-১৪-৬২৮৫)। নিহত তানিয়ার পরিহিত কাপড়, আসামিদের পরিহিত কাপড় ও মোবাইল ফোন।

উল্লেখ্য, গত ৬ মে বিকালে ঢাকার মহাখালী থেকে স্বর্ণলতা পরিবহনের একটি বাসে বাড়ি ফেরার পথে রাত সাড়ে ৮টার দিকে কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলার গজারিয়া বিলপাড় এলাকায় তানিয়াকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। এ ব্যাপারে তানিয়ার পিতা গিয়াস উদ্দিন বাদী হয়ে ৭ মে বাজিতপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। তানিয়া কটিয়াদী উপজেলার বাহেরচর গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের মেয়ে। তানিয়া ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালের নার্স ছিলেন।  

বিডি প্রতিদিন


ক্যাটেগরিঃ দেশগ্রাম,
ট্যাগঃ কিশোরগঞ্জে চলন্ত বাসে ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল
বিভাগঃ ঢাকা
জেলাঃ কিশোরগঞ্জ
ঢাকা মেট্রো নিউজ


আরো পড়ুন