প্রকাশঃ Tue, Aug 6, 2019 4:56 PM
আপডেটঃ Thu, Aug 22, 2019 7:09 PM


স্মিথকে প্রশংসায় ভাসালেন পাইন

অনলাইন ডেস্ক

স্মিথকে প্রশংসায় ভাসালেন পাইন

বল টেম্পারিং-এর দায়ে এক বছর নিষেধাজ্ঞা শেষে ১৬ মাস পর টেস্ট ক্রিকেটে ফেরার সুযোগ পান অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। ফিরেছেন বিশ্বকে চমকে দিয়ে। অ্যাশেজের প্রথম টেস্টের দুই ইনিংসেই করেছেন সেঞ্চুরি। তার ১৪৪ ও ১৪২ রানের ইনিংসের উপর ভর করে বড় জয় দিয়ে অ্যাশেজ শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। 

সোমবার এই ম্যাচ শেষে স্মিথকে প্রশংসায় ভাসালেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক টিম পাইন। তবে প্রথম ইনিংসে লিড পেয়েও ২৫১ রানে ম্যাচ হারে হতাশ ওয়ানডে বিশ্বকাপ জয়ী ইংল্যান্ডের টেস্ট অধিনায়ক জো রুট।

অনেকটা ব্যাকফুটে থেকেই অ্যাশেজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নামে অস্ট্রেলিয়া। কারণ নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ১৬ মাস পর এক সাথে জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট ম্যাচ খেলতে নামেন স্মিথ-ডেভিড ওয়ার্নার ও ক্যামেরুন বেনক্রফট। প্রথম ইনিংসে ব্যাট হাতে পুরোপুরিভাবেই ব্যর্থ বেনক্রফট ও ওয়ার্নার। বেনক্রফট ৮ ও ওয়ার্নার ২ রান করেন। শুধু তারাই নন, দলের অন্যান্য স্বীকৃত ব্যাটম্যানরাও ব্যর্থ। তাই ১২২ রানে ৮ উইকেট হারিয়েছিলো অস্ট্রেলিয়া। এই অবস্থা দেখেও ভেঙে পড়েননি স্মিথ।

টেল-এন্ডার পিটার সিডলকে নিয়ে দারুণ লড়াই করেন স্মিথ। নবম উইকেটে ৮৮ রানের জুটি গড়েন তারা। এর মধ্যে ৪৪ রান অবদান ছিল সিডলের। শেষ উইকেটে শেষ ব্যাটসম্যান নাথান লায়নকে নিয়ে লড়াই করেন স্মিথ। শেষ উইকেটে ৭৪ রান যোগ করে দলকে ২৮৪ রানের সম্মানজনক স্কোর এনে দেন স্মিথ। নিজে ১৪৪ রানে আউট হন। তার ২১৯ বলের ইনিংসে ১৬টি চার ও ২টি ছক্কা ছিল।

এরপর নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩৭৪ রান তুলে ইংল্যান্ড। ফলে প্রথম ইনিংস থেকে ৯০ রানের লিড পায় ইংলিশরা। পিছিয়ে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে ৭৫ রানে ৩ উইকেট হারিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। এই ইনিংসেও ব্যর্থ বেনক্রফট ও ওয়ার্নার। বেনক্রফট ৭ ও ওয়ার্নার ৮ রান করেন। তাই আবারো কঠিন পরিস্থিতিতে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট হাতে নামতে হয় স্মিথকে। এখানেও হাল ছাড়েননি তিনি। চতুর্থ উইকেটে ট্রাভিস হেডকে নিয়ে ১৩০ ও পঞ্চম উইকেটে ম্যাথু ওয়েডকে নিয়ে ১২৬ রানের জুটি গড়েন স্মিথ। এই ইনিংসেও সেঞ্চুরি তুলে আউট হন স্মিথ। ১৪টি চারে ২০৭ বলে ১৪২ রান করেন তিনি। সেঞ্চুরির স্বাদ নিয়েছেন ওয়েডেও। করেছেন ১১০ রান। ফলে ৭ উইকেটে ৪৮৭ রান তুলে ইংল্যান্ডের সামনে ৩৯৮ রানের টার্গেট দিতে পারে অস্ট্রেলিয়া।

৩৯৮ রানের টার্গেটে অস্ট্রেলিয়ার দুই বোলার স্পিনার নাথান লায়ন ও পেসার প্যাট কামিন্সের তোপে মাত্র ১৪৬ রানেই গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ড। লায়ন ৬টি ও কামিন্স ৪টি উইকেট নেন। ফলে দুর্দান্ত জয়ে অ্যাশেজ শুরু করে অস্ট্রেলিয়া।

তাই ম্যাচ শেষে স্মিথের প্রশংসা করলেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক পাইন। তিনি বলেন, ‘স্মিথের সম্পর্কে বলার কিছু নেই। আমরা টেস্টে সেরা পারফরমেন্স দেখলাম। দীর্ঘদিন পর টেস্ট ক্রিকেটে ফিরে যেভাবে দু’টি ইনিংস খেললো স্মিথ। এটি সত্যিই অসাধারণ। দলের বিপদের সময় জ্বলে উঠে তার ব্যাট। আমরা এটির সাক্ষী হতে পেরে ভাগ্যবান। আমি অবাক বলবো না, ভেবেছিলাম আমরা ব্যাকফুটে ছিলাম। তবে ক্রিজে আমাদের সেরা খেলোয়াড়ই ছিল।’

বিডি প্রতিদিন


ক্যাটেগরিঃ খেলাধুলা,
ট্যাগঃ স্মিথকে প্রশংসায় ভাসালেন পাইন
ঢাকা মেট্রো নিউজ


আরো পড়ুন