প্রকাশঃ Tue, May 19, 2020 2:46 PM
আপডেটঃ Wed, Jul 8, 2020 9:42 PM


মোরেলগঞ্জে সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিতে পারবে দেড় লাখ লোক, সামাজিক দূরত্ব নিয়ে শঙ্কা

অনলাইন ডেস্ক

মোরেলগঞ্জে সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিতে পারবে দেড় লাখ লোক, সামাজিক দূরত্ব নিয়ে শঙ্কা

করোনা যুদ্ধের মধ্যেই সুপার সাইক্লোন আম্ফানের সাথে যুদ্ধের প্রস্তুতি হিসেবে বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ১৩৩টি সাইক্লোন শেল্টার ও ১৫০টি পাকা ভবন মানুষের আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে প্রস্তুত করা হয়েছে। আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে প্রায় দেড় লাখ লোক আশ্রয় নিতে পারবে। তবে, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা নিয়ে শঙ্কা রয়েছে। 

সুন্দরবন সংলগ্ন উপকূলীয় এ উপজেলায় লোক সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৩ লাখ। সুপার সাইক্লোন আম্ফান মোকাবেলা ও ক্ষয়ক্ষতি কমাতে পুলিশ, আনসার ভিডিপি, ফায়ার সার্ভিস, গ্রাম পুলিশ ও স্কাউটস সদস্যদের সমন্বয়ে ১০টি দ্রুত উদ্ধারকারী দল গঠন করা হয়েছে। মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে ১৭টি। 

কোস্টগার্ড মোরেলগঞ্জ কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মো. ফরহাদুল ইসলাম বলেন, ৭নং বিপদ সংকেত ঘোষণার পরেই পানগুছি নদীতে সার্বক্ষণিক চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। কয়েকটি সমুদ্রগামী ট্রলার ফেরত পাঠানো হয়েছে। 

 

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের আঘাতে নদীর তীরবর্তী কুমারখালী, সন্ন্যাসী, খাউলিয়া, কাঠালতলা, গাবতলা, বদনীভাঙ্গা, পাঠামারা, সানকিভাঙ্গা, বারইখালী, শ্রেণিখালী, বহরবুনিয়া, ফুলহাতা, ঘষিয়াখালী, শোনাখালী, দেবরাজ, নতুন বাজার, মিস্ত্রীডাঙ্গা, হেড়মা ও মোরেলগঞ্জ সদর বাজারসহ কমপক্ষে ২৫টির বেশি গ্রাম ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান বলেন, ঝড়ের ক্ষয় ক্ষতি কমাতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। সর্বসাধারণকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জরুরি খাদ্য সহায়তা হিসেবে ১০০ মণ মুড়ি, ২৭ মণ চিড়া, ৬০ মণ চিনি মজুদ করা হয়েছে। সকল আশ্রয় কেন্দ্রে করোনা প্রতিরোধক সরঞ্জামও মজুদ করা হয়েছে। 

২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বরের ঘূর্ণিঝড় সিডর’র আঘাতে মোরেলগঞ্জে ৯৩ জনের প্রাণহানিসহ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির ঘটনা ঘটে।


ক্যাটেগরিঃ দেশগ্রাম,
ট্যাগঃ মোরেলগঞ্জে সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিতে পারবে দেড় লাখ লোক
বিভাগঃ খুলনা
জেলাঃ বাগেরহাট
উপজেলাঃ মোড়েলগঞ্জ
ঢাকা মেট্রো নিউজ


আরো পড়ুন